1. nannunews7@gmail.com : admin :
  2. enamul.kst70@gmail.com : Enamul Haque : Enamul Haque
  3. labonnohaq71@gmail.com : Labonno Haq : Labonno Haq
রবিবার, ১১ এপ্রিল ২০২১, ০৫:৩৭ অপরাহ্ন

বীরমুক্তিযোদ্ধা খোঃ আঃ মোমেনের মৃত্যু বার্ষিকী আজ

  • প্রকাশিত সময় : বুধবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
  • ১৮ বার

সোহাগ মাহমুদ খান, কুষ্টিয়া :

বীরমুক্তিযোদ্ধা কুষ্টিয়ার কুমারখালীর  সাবেক পৌর কাউন্সিলর , বিশিষ্ট ব্যবসায়ীআলহাজ খোন্দকার আব্দুল মোমেন-এর আজ ষষ্ঠ মৃত্যু বার্ষিকী।

এই ব্যবসায়ীর মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে দুই-তিন দিনব্যাপী পারিবারিক ভাবে আয়োজিত বিভিন্ন কর্মসুচী পালন করা হচ্ছে। কর্মসুচীর মধ্যে রয়েছে তাঁর রুহের মাগফেরাত কামনা করে কুমারখালী কেন্দ্রীয় বড় জামে মসজিদসহ পৌর এলাকার বিভিন্ন মসজিদে দোয়া মাহফিল, শহরের দুইটি ইয়াতিমখানায় উন্নতমানের খাবার পরিবেশন ও গরীব অসহায় দুস্থ্য মানুষের মাঝে বস্ত্র সামগ্রী বিতরণ।

কুমারখালী শহরের প্রধান সড়কের এক সময়ের সবচেয়ে বড় মুদি দোকান ‘খোন্দকার স্টোর‘-এ বসে এই জনদরদী তাঁর সব ধরনের কর্মকান্ড পরিচালনা করতেন। অন্যান্য ব্যবসায়ীদের কাছে তিনি ছিলেন প্রিয়ভাজন। সে কারনে বাজারের ব্যবসায়ী সমিতির তিনি দীর্ঘ ২৫/২৬ বছর সভাপতির পদে থেকে সুনাম অর্জন করেছিলেন। বীরমুক্তিযোদ্ধা আলহাজ¦ খোন্দকার আব্দুল মোমেন দেশ ও সমাজের জন্য কাজ করলেও বিনিময় গ্রহনের কথা ভাবতেন না, তাই তিনি ১৯৭১ সালে স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধাদের সর্বাত্নক সাহায্য সহযোগীতা করলেও মুক্তিযোদ্ধার সার্টিফিকেট গ্রহন করেননি বলে মরহুমের ছেলে খোন্দকার নাজমুল আলম সুমন জানিয়েছেন। ব্যবসায়ী সংগঠক বীরমুক্তিযোদ্ধা আলহাজ¦ খোন্দকার আব্দুল মোমেন-এর হাতে গড়া ‘খোন্দকার স্টোর‘ আজও টিকে আছে। কুমারখালীবাসী এখনও সৎ ব্যবসায়ী হিসেবে এই মহৎ ব্যক্তিকে শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করেন।

বিশিষ্ট ব্যবসায়ী খোন্দকার আব্দুল মোমেনের ব্যাপারে কুমারখালী বাজারের ‘সু‘ ব্যবসায়ী কে এম আলম টমে ও সবজী ব্যবসায়ী আব্দুল মান্নান বলেন, তাঁর মত সৎ, সাংগঠনিক ও যোগ্য  ব্যবসায়ী এখন পাওয়া দুষ্কর। তিনি দ্রব্যে ভেজালের সাথে কোন রুপ আপস করতেন না। ভেজালমুক্ত দ্রব্য খোন্দকার স্টোরে পাওয়া যায়-এই সুখ্যাতি ছিল। কোন ব্যাসায়ীর ব্যবসা সংক্রান্ত সমস্যা হলে খোন্দকার সাহেব নিজ উদ্যোগে সমাধান করে দিতেন। পুলিশ কিংবা আইন-আদালত পর্যন্ত কাউকে যেতে হতো না, এটা ছিল তার বড় গুন। চাউল ব্যবসায়ী নজরুল ইসলাম জানান, মরহুম খোন্দকার আব্দুল মোমেন ব্যবসার ক্ষেত্রে নীতিনৈতিকতার উজ্জল দৃষ্টান্ত ছিলেন। তাঁর কথা ও কাজের সাথে কোন গড়মিল দেখা যায়নি। তিনি ব্যবসায় কোন দ্রব্যে লোকসান হলেও নীতির সাথে বেইমানী করেননি। ব্যবসায়ী হিসেবে তাঁর আদর্শ ও কৌশল অনুকরনীয়। অত্র খোন্দকার ষ্টোরে দীর্ঘদিনের ক্রেতা অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক তোফাজ্জেল হোসেন জানান, ভেজালমুক্ত দ্রব্যাদীর জন্য এই দোকানে নিয়মিত সওদা করি, মরহুম আব্দুল মোমেনের সন্তানেরা পিতার আদর্শ ধরে রেখেছেন বলেও তিনি মতামত দেন।

কুমারখালী বাজার ও বণিক সমিতির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা আলহাজ¦ খোন্দকার আব্দুল মোমেন জীবদ্দশায় বিভিন্ন ব্যবসায়ীক, সামাজিক, ধর্মীয় ও শিক্ষা সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের সাথে সম্পৃক্ত থেকে অত্যন্ত দক্ষতা ও সুনামের সাথে দায়ীত্ব পালন করে সবার শ্রদ্ধেয় পাত্রে পরিনত হয়েছিলেন। তিনি কুমারখালী শহরের বাটিকামারা গ্রামের জিজাবাগান মাদরাসা ও জামে মসজিদ প্রতিষ্ঠা করে ইতিহাস গড়েছেন। এছাড়াও বীরমুক্তিযোদ্ধা আলহাজ¦ খোন্দকার আব্দুল মোমেন ছিলেন একজন জনপ্রিয় জনপ্রতিনিধিও ছিলেন, পৌরসভার ১নং ওয়ার্ডের বারবার নির্বাচিত কাউন্সিলর হিসেবে নির্বাচিত হওয়ায় যার প্রমাণ। মরহুমের সন্তানেরা পিতার রুহের মাগফেরাত কামনায় সবার কাছে দোয়া প্রার্থনা করেছেন।

দেশতথ্য//এল//

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরও সংবাদ
© All rights reserved © 2020 Deshtathya
Theme Design By : Rubel Ahammed Nannu : 01711011640