1. nannunews7@gmail.com : admin :
  2. labonnohaq71@gmail.com : Labonno Haq : Labonno Haq
মঙ্গলবার, ০২ মার্চ ২০২১, ০৭:৫৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
কালীগঞ্জে অবৈধ যান চালানো শিখতে গিয়ে যুবকের মৃত্যু ঝিনাইদহে হাত-পা বাঁধা অবস্থায় মাদ্রাসা শিক্ষকের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার কুষ্টিয়া জেলা কারাগারে প্রশিক্ষণ নিয়ে কয়েদীরা হচ্ছেন স্বাবলম্বী দৌলতপুরে জাতীয় বীমা দিবস পালন কুমারখালীর বাঁশগ্রাম কামিল মাদরাসায় কামিল ও ফাযিল  পরীক্ষায় সফলতা  কুষ্টিয়ায় দৈনিক আমাদের কন্ঠ পত্রিকার প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন বালিয়াকান্দি ইউসিসিএর নব-নির্বাচিত ব্যবস্থাপনা কমিটির সভা বালিয়াকান্দিতে জাতীয় বীমা দিবস উপলক্ষ্যে বর্ণাঢ্য র‌্যালি অনুষ্ঠিত মিরপুরে জাসদের পতাকা মিছিল ও সমাবেশ কুষ্টিয়ায় অনিয়মের অভিযোগে বন্ধ করে দেয়া হলো ব্রিজ নির্মাণ কাজ

সংঘাত ও বর্জনে শেষ হলো চতুর্থ ধাপের ভোট

  • প্রকাশিত সময় : রবিবার, ১৪ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
  • ৫ বার

স্টাফ রিপোর্টার:
বিক্ষিপ্ত সহিংসতা, বোমাবাজি ও একজনের মৃত্যু মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছে চলমান পৌরসভা নির্বাচনের চতুর্থ ধাপের ভোটগ্রহণ। এখন চলছে গণনা।

রোববার সকাল ৮টা থেকে এসব পৌরসভায় ভোটগ্রহণ শুরু হয়ে চলে বিকাল ৪টা পর্যন্ত। নির্বাচনের দিন দুপুরে ছুরিকাঘাতে এক কাউন্সিলর প্রার্থীর ভাইয়ের মৃত্যুর হয়েছে বলে জানা গেছে।

এদিকে বেশ কিছু জায়গায় ভোট বর্জন করেছেন বিএনপির প্রার্থীরা। এর মধ্যে বরিশালের বানারীপাড়া, চুয়াডাঙ্গার জীবননগর, চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ ও বাগেরহাট পৌরসভায় বিএনপির মেয়র প্রার্থীরা অনিয়মের অভিযোগে ভোট বর্জনের ঘোষণা দেন।

এর মধ্যে ২৯ পৌরসভায় ভোট হয়েছে ইভিএমে, বাকি ২৬ পৌরসভায় পুরনো পদ্ধতিতে ব্যালট পেপারে ভোটগ্রহণ হয়। এর আগে প্রথম তিন ধাপের ভোটে সহিংসতার কারণে এবার বাড়তি সতর্কতা নেয়ার কথা জানিয়েছিল নির্বাচন কমিশন। তাতেও কিছু এলাকায় সংঘাত এড়োনো যায়নি।

বিভিন্ন প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর অনুযায়ী, চট্টগ্রামের পটিয়ায় নির্বাচনী সহিংসতায় দুই কাউন্সিলর প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে গোলাগুলি হয়েছে। এসমেয় আবদুল মাবুদ নামে এক ব্যক্তি ছুরিকাঘাতে নিহত হন। এসময় স্থানীয় আনসার ভিডিপি ক্যাম্পে অগ্নিসংযোগের ঘটনাও ঘটে।

নিহত আবদুল মাবুদ ৮ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী আবদুল মান্নানের বড় ভাই বলে জানা গেছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও কয়েকজন। এছাড়া, নোয়াখালীর সোনাইমুড়ীতে পৌরসভাতেও একটি ভোটকেন্দ্রের বাইরে দুই কাউন্সিলর প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সহিংসতার খবর পাওয়া গেছে।

টাঙ্গাইলের কালিহাতী পৌরসভায় একটি কেন্দ্রের বাইরে আওয়ামী লীগ ও বিএনপি কর্মীদের সংঘর্ষে অন্তত চারজন আহত হয়েছেন। অন্যদিকে কেন্দ্রের ভেতর গণ্ডগোল করায় ময়মনসিংহের ত্রিশাল পৌরসভার এক কাউন্সিলর প্রার্থীকে দুই ঘণ্টা আটক রাখে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

এই ধাপে ৩৪ জেলার ৫৫ পৌরসভায় ভোটার ছিলেন প্রায় ১৭ লাখ। মেয়র পদে আওয়ামী লীগ ও বিএনপিসহ কয়েকটি দল অংশ নিলেও মূল প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে নৌকা ও ধানের শীষের প্রার্থীর মধ্যেই। মেয়র পদে ২১৭ জন, সাধারণ কাউন্সিলর পদে ২০৭০ জন ও সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ৬১৮ জন প্রার্থী এ নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় ছিলেন।

এবার নির্বাচন সুষ্ঠু ও সহিংসতামুক্ত করতে প্রতিকেন্দ্রে ৩-৪ জন অস্ত্রধারী পুলিশ, অঙ্গীভূত আনসারসহ সব মিলিয়ে ১১ থেকে ১৩ জন সদস্য মোতায়েন করা হয়েছিল। প্রতিটি সংরক্ষিত ওয়ার্ডে একটি করে র‌্যাবের টিম রাখা হয়েছে। এছাড়া নির্বাহী ও বিচারকি হাকিমরা মাঠে দায়িত্ব পালন করেছেন। রিটার্নিং কর্মকর্তার চাহিদার ভিত্তিতে ২৭টি স্থানে বিজিবি ও র‌্যাব সদস্যের সংখ্যাও বাড়ানো হয়েছিল।

করোনাভাইরাস মহামারীর মধ্যে এবার পাঁচ ধাপে পৌরসভায় নির্বাচন করছে কমিশন। এর মধ্যে ২৮ ডিসেম্বর, ১৬ জানুয়ারি ও ৩০ জানুয়ারি- তিন ধাপের ভোট শেষ হয়েছে। সে সময়ও গোলযোগ-সহিংসতা ঘটেছে কিছু এলাকায়।

দেশতথ্য//এল//

 

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরও সংবাদ
© All rights reserved © 2020 Deshtathya
Theme Design By : Rubel Ahammed Nannu : 01711011640