1. nannunews7@gmail.com : admin :
  2. labonnohaq71@gmail.com : Labonno Haq : Labonno Haq
মঙ্গলবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২০, ০৫:৩৯ অপরাহ্ন

সালমার বোলিং নৈপুণ্যে চ্যাম্পিয়ন ট্রলব্লেজার্স

  • প্রকাশিত সময় : মঙ্গলবার, ১০ নভেম্বর, ২০২০
  • ৭ বার

স্পোর্টস ডেস্ক:

প্রথমবারের মতো প্রমীলা আইপিএলখ্যাত ওমেন্স টি-টোয়েন্টি চ্যালেঞ্জ ২০২০ এ অংশ নিয়েছিলেন টাইগ্রেস অলরাউন্ডার সালমা খাতুন। আর প্রথমবারেই বাজিমাত করেছেন তিনি। স্মৃতি মান্দানার অসাধারণ ব্যাটিং আর সালমা খাতুনের বোলিং নৈপুণ্যে টি-টোয়েন্টি চ্যালেঞ্জে প্রথমবারের মতো শিরোপা জিতলো ট্রাইলব্লেজার্স।

সোমবার রাতে শারজাহ ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ট্রেলব্লেজার্স প্রথমে ব্যাট করে ৮ উইকেটে ১১৮ রান সংগ্রহ করে। জবাবে ৭ উইকেটে ১০২ রানের বেশি করতে পারেনি সুপারনোভাস। ১৬ রানের জয়ে প্রথমবারের মতো শিরোপা জিতে নেয় ট্রেইলব্লেজার্স।

এদিন ট্রেল্বলেজার্সের জয়ের অন্যতম কারিগর ছিলেন সালমা খাতুন। ডেথ ওভারে চমৎকার বোলিং নৈপুণ্য দেখিয়েছেন টাইগ্রেস সালমা। চার ওভারে মাত্র ১৮ রান দিয়ে তুলে নিয়েছেন তিনিটি উইকেট।

শারজাহ স্টেডিয়ামে এদিন টস জিতে ট্রেলব্লেজার্সকে ব্যাটিংয়ে পাঠায় সুপারনোভা। ট্রেলব্লেজার্সইয়ের দুই ওপেনার স্মৃতি মান্দার ও দিয়ান্দ্রা ডটিন শুরু থেকেই দেখেশুনে খলতে থাকে। ডটিন ঠাণ্ডা মাথায় খললেও স্মৃতি ছিলেন আক্রমাণাত্নক। এই উদ্বোধনী জুটি থেকে আসে ৭১ রান।

ডটিনিকে আউট করে সুপারনোভার পক্ষে প্রথম ব্রেকথ্রু এনে দেন লুনম যাদব। তবে অন্যদিকে উইকেট আগলে রেখে খলতে থাকেন স্মৃতি। এবারের টুর্নামেন্টে নিজের প্রথম ফিফটিও তুলে নেন তিনি। দলীয় ১০১ রানের মাথায় শশীকলা সিরিবর্ধানের বলে আউট হওয়ার আগে ৪৯ বলে ৫ চার ও ৩ ছক্কায় করেন ৬৮ রান।

তবে চমৎকার খলতে থাকা ট্রেলব্লেজার্সের ইনিংস বেশি বড় হতে দেয়নি সুপারনোভার রাধা যাদব। তার বোলিং জাদুতে স্লগ ওভারে তেমন রান করতে পারেননি ট্রেলব্লেজার্সের কোন ব্যাটসম্যানরা। দলীয় ১৭তম ওভারে তুলে নেন দুই উইকেট। শেষদকে দোতিন ২০ ও রিচা ঘোষের ১০ রানে ভর করে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৮ উইকেটের বিনিময়ে ১১৮ রান সংগ্রহ করে ট্রেলব্লেজার্স। অন্য কোন ব্যাটসম্যান দুই অংকের কোঁটা ছুঁতে পারেননি।

১১৯ রানে তাড়া করতে নেমে সুপারনোভার জেমিমহ রড্রিগেজ এবং তানিয়া ভাটিয়া দেখে শুনে ব্যাটিং করতে থাকেন। তবে দলীয় ৩০ ও ৩৭ রানে দীপ্ত শর্মার বলে প্রথমে তানিয়া ও পরে জেমিমহ আউট হলে কিছুটা চাপে পড়ে সুপারনোভা। এরপর দলের হাল ধরেন অধিনায়ক হারামানপ্রীতি ও শশীকলা। এই ৪র্থ জুটি থেকে আসে ৩৭ রান।

এই জুটির দারুণ ব্যাটিংয়ে শিরোপার স্বপ্ন দেখতে থাকে সুপারনোভা। তবে এরপরই শুরু সালমার জাদু। দলীয় ৭৪ রানে শশীকলাকে আউট করেন সালমা। এরপর ১৯তম ওভারে দারুণ এক বলে প্রীতিকে বোল্ড করে সাজঘরে ফেরান তিনি। একই ওভারের ৫ম বলে পূজা ভাস্কাকারকেও বিদায় করে ট্রেলব্লেজার্সের জয় নিশ্চিত করেন সালমা।

সুপারনোভার ইনিংস শেষ হয় নির্ধারিত ২০ ওভারে ৭ উইকেটে ১০২ রান করে। ১৬ রানের জয় পেয়ে চ্যাম্পিয়ন হয় ট্রেলব্লেজার্স। সুপারনোভার হয়ে প্রীতি ৩০ ও শশীকলা ১৯ রান করেন।

প্লেয়ার অফ দা ম্যাচ হয়েছেন ট্রেলব্লেজার্সের স্মৃতি মান্দানা এবং প্লেয়ার অফ দা টুর্নামেন্ট হয়েছেন সুপারনোভার রাধা যাদব।

দেশতথ্য//এল//

 

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরও সংবাদ
© All rights reserved © 2020 Deshtathya
Theme Design By : Rubel Ahammed Nannu : 01711011640