1. nannunews7@gmail.com : admin :
  2. labonnohaq71@gmail.com : Labonno Haq : Labonno Haq
মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বর ২০২০, ০৩:১৮ অপরাহ্ন

মির্জাপুর আইন-শৃঙ্খলা উন্নয়নে বসানো হয়েছে সিসি ক্যামেরা

  • প্রকাশিত সময় : বৃহস্পতিবার, ২২ অক্টোবর, ২০২০
  • ৫ বার

মীর আনোয়ার হোসেন টুটুল, মির্জাপুর (টাঙ্গাইল) সংবাদদাতা:
টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে মুজিব বর্ষকে সামনে রেখে আইন-শৃঙ্খলা উন্নয়নের জন্য রাস্তার পাশে বসানো হয়েছে সিসি ক্যামেরা। আর থানাকে অনিয়ম-দুর্নীতিমুক্ত এবং জনবান্ধব করতে দেয়ালে দেয়ালে সাটানো হয়েছে জনসচেতনা মুলক ব্যানার। সড়ক পরিবহন এবং সেতু মন্ত্রনালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ¦ একাব্বর হোসেন এমপি, টাঙ্গাইলের জেলা প্রশাসক মো. শহীদুল ইসলাম এবং পুলিশ সুপার মি. সনজিৎ কুমার রায় এর নির্দেশনায় মির্জাপুর থানা পুলিশ থানার চার পাশের বাউন্ডারী দেয়ালে জনসচেতনতামুলক বিভিন্ন বাণী ও শ্লোগান সম্বলিত ব্যানার লিখেছেন। থানাকে নানা সাজে সজ্জিত করা হয়েছে। থানা পুলিশের এমন মহতী উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন এলাকাবাসি ও সচেতন মহল। সাধারন পথচারীগন মনোযোগ দিয়ে দেয়ালে দেয়ালে ব্যানার পোষ্টারে সাটানো এসব গুরুত্বপুর্ন বাণী ও শ্লোগান পড়ে যাচ্ছেন। আজ রবিবার উপজেলা সদরের কলেজ রোড অবস্থিত মির্জাপুর থানার চারপাশ ঘুরে এমন চিত্রই দেখা গেছে।
মির্জাপুর থানা পুলিশ সুত্র জানায়, মুজিব বর্ষের অঙ্গিকার, পুলিশ হবে জনতার, পুলিশ জনতা শপথ করি, মাদক ও জঙ্গি মুক্ত সমাজ গড়ি- এই শ্লোগান নিয়ে তারা মির্জাপুর থানাকে একটি আদর্শ ও মডেল থানায় রুপান্তরের জন্য কাজ শুরু করেছেন। পুলিশের সম্পর্কে সাধারন মানুসের ইতি বাচক ভুমিকার চেয়ে নেতী বাচক ধারনা পাল্টাতে যান মির্জাপুর থানা। ওসি মো. সায়েদুর রহমান জানান, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আবদুল মালেক, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মীর এনায়েত হোসেন মন্টু, পৌরসভার মেয়র মো. সাহাদৎ হোসেন সুমন ও উপজেলা সহকারী কমিশনার(ভুমি) মো. মইনুল হোসেন মির্জাপুর পৌরসভা ও ১৪ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান, স্থানীয় রাজনৈতিক দলের নের্তৃবৃন্দ, সুশিল সামজের নের্তৃবৃন্দ, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্র-ছাত্রী ও শিক্ষক, মসজিদ মাদ্রাসার ইমাম, মন্দিরের পুরোহিতসহ ও সাধারন জনগনের সার্বিক সহযোগিতায় মির্জাপুর থানাকে ঢেলে সাজানোর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। প্রাথমিক ভাবে মির্জাপুর পৌরসভায় বসানো হয়েছে ২৯ সিসি ক্যামেরা। পুলিশের সেবাকে জনগনের দৌড় গোড়ায় পৌছে দেওয়ার লক্ষ নিয়ে মির্জাপুর থানা পুলিশ উঠান বৈঠক, র‌্যালি ও আলোচনা সভাসহ নানা কাজ করে যাচ্ছেন।
পুলিশ জানায়, মির্জাপুর পৌরসভা ও ১৪ ইউনিয়নের মাদকসেবী ও মাদক বিক্রেতা. ডাকাত, দাগী মামলার আসামী, চোর ও ছিনতাইকারীসহ পলাতক মামলার আসামীদের আইনের আওতায় এনে জেল হাজতে পাঠাচ্ছেন। মির্জাপুর থানার পুলিশ সদস্যরা দিন রাত মনিটরিং করছেন কোন পুলিশ সদস্য অপরাদের সঙ্গে জড়িত কিনা। এছাড়া কোন সাধারন মানুষ থানায় সেবা গ্রহন করতে এসে হয়রানীর শিকার হচ্ছেন কিনা। থানায় বসানো হয়েছে হেল্প ডেক্্র। যে কোন সাধারন লোকজন এই হেল্প ডেক্্ের এসে যে কোন সেবা গ্রহন করতে পারেন। মনিটরিং কমিটি জন সাধারনকে সচেতন করতে থানার চার পাশের বাউন্ডারী দেয়ালে বিভিন্ন বাণী ও শ্লোগান সম্বলিত ব্যানার পোষ্টার সাটিয়ে দিয়েছেন।
সরেজমিন গিয়ে দেখা গেছে থানার আশপাশে দেয়ালের পোষ্টার-ব্যানারে লেখা রয়েছে, পুলিশ জনতা শপথ করি, মাদক মুক্ত সমাজ গড়ি, জঙ্গি দমনে রোল মডেল পুলিশের অর্জন ঢের অঢেল, মাদকাসক্তরা আমাদের সন্তান, আসুন সুস্থ্য জীবনের পথে তাদেরকে সহায়তা করি, আপনার সন্তান কোথায় যায় কাদের সাথে চলাফেরা করে, নিয়মিত স্কুল-কলেজে যায় কিনা, অপ্রয়োজনে বাড়ির বাইরে থাকে কিনা, অস্বাভাবিক জীবন যাপন করে কিনা, আপনি যে অর্থ দিন তা সঠিক ভাবে ব্যয় করে কিনা। এছাড়া বাল্য বিবাহ প্রতিরোধসহ বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহনের লক্ষে পুলিশ নিয়মিত কাজ করে যাচ্ছেন বলেও জানিয়েছেন।
এ ব্যাপারে মির্জাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. সায়েদুর রহমানের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, বর্তমান সরকার এবং পুলিশের মহাপরিদর্শক ড. মো. জাবেদ পাটোয়ারী সারা দেশে পুলিশ বাহিনীকে ঢেলে সাজানোর জন্য ব্যাপক উদ্যোগ গ্রহন করেছেন। টাঙ্গাইলের জেলা প্রশাসক মো. শহীদুল ইসলাম, পুলিশ সুপার সঞ্জিত কুমার রায়ের সঙ্গে পরামর্শ করে মির্জাপুর থানাকে আদর্শ ও মডেল থানা উপহার দেওয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে। পুলিশ সম্পর্কে সাধারন মানুষের ইতিবাচক চেয়ে নেতিবাচক ধারনা রয়েছে। সাধারন মানুষ মনে করে থানায় পুলিশের কাছে গেলেই মনে হয় টাকা লাগে। আসলে এটা তাদের ভুল ধারনা। পুলিশই জনতা জনতাই পুলিশ এই শ্লোগান নিয়ে আমরা মির্জাপুর থানাকে ঢেলে সাজানোর জন্য কাজ করে যাচ্ছি। তিনি আইনশৃংখলার উন্নয়নের জন্য মির্জাপুরবাসির সার্বিক সহযোগিতা কামনা করেন।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আবদুল মালেক এবং সহকারী কমিশনার (ভুমি) ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মো. মইনুল হক বলেন, আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সকল সদস্য এবং এলাকার রাজনৈতিক দলের ব্যক্তি বর্গসহ সকলের সহযোগিতায় আইন-শৃঙ্খলার উন্নয়নসহ মির্জাপুরকে ঢেলে সাজানোর জন্য কাজ করা হচ্ছে।

দেশতথ্য//এল/

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরও সংবাদ
© All rights reserved © 2020 Deshtathya
Theme Design By : Rubel Ahammed Nannu : 01711011640