1. nannunews7@gmail.com : admin :
  2. labonnohaq71@gmail.com : Labonno Haq : Labonno Haq
শনিবার, ৩১ অক্টোবর ২০২০, ০৪:৪৬ অপরাহ্ন

ঝিনাইদহ জেলার সকল সংবাদ

  • প্রকাশিত সময় : সোমবার, ১২ অক্টোবর, ২০২০
  • ১৪ বার
??

শৈলকুপায় প্রতিপক্ষের বল্লমের আঘাতে এক নারী নিহত

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি:
ঝিনাইদহের শৈলকুপা উপজেলার ভাটবাড়িয়া গ্রামে সামাজিক আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের বল্লমের আঘাতে সুফিয়া খাতুন (৬০) নামের এক নারী নিহত হয়েছে।
আহত হয়েছে আরও ৫ জন। ভাংচুর করা হয়েছে ৫ টি বাড়িঘর।
সোমবার সকালে শৈলকুপা উপজেলার ভাটবাড়িয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।
নিহতের স্বজনরা জানায়, দীর্ঘদিন ধরে সারুটিয়া ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান মাহমুদুল হাসান মামুন ও গত নির্বাচনে পরাজিত চেয়ারম্যান জুলফিকার কাইসার টিপুর সমর্থকদের মাঝে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল।
এরই জের ধরে সোমবার সকালে ভাটবাড়িয়া গ্রামের টিপুর সমর্থক জালাল উদ্দিনের বাড়িতে ঢাল, শরকি, রামদা লাঠিসোটা নিয়ে হামলা চালায় মামুনের সমর্থক আফজাল বিশ^াসের অর্ধশত লোকজন। এসময় জালাল উদ্দিনের স্ত্রী সুফিয়া বেগম ছেলেদের বাঁচাতে বাঁধা দিলে হামলাকারীদের বল্লমের আঘাতে ঘটনাস্থলেই নিহত।
ঝিনাইদহের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আনোয়ার সাঈদ জানান, খববর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসাপাতালের মর্গে পাঠায়। এ ঘটনায় ৩ জনকে আটক করেছে পুলিশ।

 

মুজিববর্ষ উপলক্ষে ঝিনাইদহ প্রেসক্লাবে আলোচনা সভা
ঝিনাইদহ প্রতিনিধি:
মুজিববর্ষ উপলক্ষে বাংলাদেশ প্রেস কাউন্সিলের পক্ষ থেকে ঝিনাইদহ প্রেসক্লাবে আলোচনা সভা ও বই বিতরণ করা হয়েছে।

আজ সোমবার সকালে ঝিনাইদহ প্রেসক্লাব মিলনাতনে বাংলাদেশ প্রেস কাউন্সিলের আয়োজনে আলোচনা সভা ও বই বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়। এসময় বাংলাদেশ প্রেস কাউন্সিলের চেয়ারম্যান সাবেক বিচারপতি মমতাজ উদ্দিন আহমেদ, সচিব মোহাম্মদ শাহ আলম, ঝিনাইদহ প্রেসক্লাবের সভাপতি এম রায়হান, সাধারণ সম্পাদক মাহমুদ হাসান টিপুসহ অন্যান্যরা বক্তব্য রাখেন। পরে ঝিনাইদহ প্রেসক্লাবে সকল সাংবাদিকদের মাঝে বই বিতরণ করা হয়। এ সময় সাংবাদিকদের জীবনমান উন্নয়নে আলোচনা করা হয়।

শৈলকুপায় দুর্যোগ সহনীয় ঘর নির্মাণে জালিয়াতির
ঝিনাইদহ প্রতিনিধি:
ঝিনাইদহের শৈলকুপায় প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া দুর্যোগ সহনীয় ঘর নির্মাণে এবার পুরোটায় জালিয়াতি করার অভিযোগ উঠেছে।
উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার কার্যালয়ে কাগজে-কলমে একজনের নামে বরাদ্ধ থাকলেও নির্মাণ করা হচ্ছে অন্যজনের বাড়িতে।
প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসের উপ-সহকারী প্রকৌশলীর যোগসাজসে ইউপি চেয়ারম্যান অর্থের বিনিময়ে এ দুর্নিতী করেছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।
জানা যায়, চলতি অর্থবছরে শৈলকুপা উপজেলার বগুড়া ইউনিয়নের বড়বাড়ি বগুড়া গ্রামের রউফ মোল্লার ছেলে রাকিবুল ইসলামের নামে প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া দুর্যোগ সহনীয় ঘর নির্মাণের বরাদ্ধ দেওয়া হয়। চলতি বছরের ১২ ফেব্রুয়ারি বগুড়া ইউনিয়নের প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটি তার নাম প্রস্তাব করে। প্রস্তাবনা অনুসারে তার নামে ঘর বরাদ্ধ দেয় শৈলকুপা উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিস। সে অনুসারে উপজেলা ভূমি অফিস তার জমির চৌহদ্দি যাচাই, ভোটার আইডি, ছবিসহ সকল কাগজপত্র সংগ্রহ করে যা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার অফিসে সংরক্ষিত। ঘর বরাদ্ধের পর বগুড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম বিশ্বাস ও প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসের উপ-সহকারী প্রকৌশলী মলয় রঞ্জন বিশ্বাস অর্থের বিনিময়ে ঘর রাকু নামের অন্যজনের বাড়িতে নির্মাণ করছেন। ভোটার আইডি অনুযায়ী যার পিতার নাম আব্দুল রউফ মিয়া।
বরাদ্ধ পাওয়া রাকিবুলের পিতা রউফ মোল্লা বলেন, কাগজপত্র নেওয়ার পর আর কোন খোজ আমরা পায়নি। হঠাৎ ১০ দিন আগে পিআইও অফিস থেকে ফোন করে বলছেন আমার ঘর কি কমপ্লিট হয়েছে। তিনি অভিযোগ করে বলেন, আমার বাড়িতে তো ঘরই নির্মাণ হচ্ছে না তো কমপ্লিট হবে কি করে। আমার ছেলের নামে বরাদ্ধকৃত ঘর চেয়ারম্যান টাকা খেয়ে অন্যজনের বাড়িতে নির্মাণ করাচ্ছে। এর সাথে পিআইও অফিসের লোকজন জড়িত।
বরাদ্ধ পাওয়া রাকিবুল ইসলাম বলেন, বগুড়া ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান নানাভাবে মানুষকে হয়রানি আর জালিয়াতি করে আসছে। আমি গরীব মানুষ। প্রধানমন্ত্রী আমাকে একটা ঘর নির্মাণ করে দিবে যেন আমি পরিবার নিয়ে মাথা গুজে থাকতে পারি। চেয়ারম্যান টাকার বিনিময়ে আমার ঘর অন্যজনের বাড়িতে নির্মাণ করাচ্ছে। এর তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানান তিনি।
অভিযোগের সংবাদ পেয়ে শৈলকুপা উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার কার্যালয়ে গিয়ে দেখা যায়, ঘর বরাদ্ধের ফাইলে রাকিবুল ইসলামের সকল কাগজপত্র রয়েছে। সেখানে রাকু’র নামের কোন ফাইল নেই। রাকুর বাড়িতে ঘর বরাদ্ধ কিভাবে হচ্ছে এমন প্রশ্নের জবাবে উপ-সহকারী প্রকৌশলী মলয় রঞ্জন বিশ্বাস বলেন, রাকুর নামে বরাদ্ধ হয়েছে। রাকুর নামের সকল কাগজপত্র দেখতে চাইলে তিনি বলেন, কাগজ তো এখানেই থাকার কথা ছিল, এখন নেই, কোথায় আছে আমি জানি না।
এ ব্যাপারে অভিযুক্ত ইউপি চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম বিশ্বাস বলেন, না সব ঠিক আছে। যার নামে বরাদ্ধ তার বাড়িতেই ঘর হচ্ছে।
এ ব্যাপারে ঝিনাইদহের জেলা প্রশাসক সরোজ কুমার নাথ বলেন, বগুড়া ইউনিয়নে ঘর নির্মাণে সমস্যা হয়েছে বলে আমি শুনেছি। একজনের বরাদ্ধকৃত ঘর যদি অন্যজনের বাড়িতে নির্মাণ করা হয় তাহলে সেখান থেকে তুলে যার নামে বরাদ্ধ আছে তার বাড়িতেই নির্মাণ করে দেওয়া হবে। আর এ অনিয়মের সাথে যারা জড়িত তাদের বিরুদ্ধে তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

ঝিনাইদহ প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি আনসারী’র ৯ম মৃত্যুবার্ষিকী
ঝিনাইদহ প্রতিনিধি:
ঝিনাইদহ প্রেসক্লাবের সভাপতির দায়িত্ব পালনকালে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে ২০১১ সালের ১২ই অক্টোবর মারা যান। সংবাদ সংগ্রহকালে তিনি দুপুর ২টার দিকে মহেশপুর সীমান্তের মাটিলা বাজারে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন। তাকে মহেশপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নেওয়া হলে বেলা আড়াইটার দিকে তার মৃত্যু হয়।
মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিলো ৬১ বছর। ঝিনাইদহ শহরের কাঞ্চননগর পাড়ার এইচ এস এস সড়কে তার বাড়ি। তিনি স্ত্রী ও দুই ছেলে রেখে গেছেন।
পারিবারিক সূত্রে আরো জানা যায়, বর্ণাঢ্য জীবণের অধিকারী ছিলেন এম এ আনসারী। তাঁর কর্মময় জীবণ ছিল সাহসিকতা, সততা, দক্ষতা ও পরিশ্রমের সাথে সাথে সাফল্যে ভরা।
আইন পেশার সনদ নেওয়া আনসারী ৭০ দশক থেকে সাংবাদিকতায় যুক্ত। তিনি এক সময় কলেজে অধ্যাপনাও করেছেন। তিনি ঝিনাইদহ মানবাধিকার বাস্তবায়ন সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা। ১৯৭৩ সালে অগ্রণী সমিতি প্রতিষ্ঠা করে অগ্রণী সংগীত বিদ্যালয়। এটিই জেলার প্রথম সংগীত বিদ্যালয়। এর সম্পাদক ছিলেন এম,এ আনসারী।
আনসারী একাধিকবার ঝিনাইদহ প্রেসক্লাবের সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন। স্থানীয় অধুনালুপ্ত দৈনিক নবগঙ্গা’র সম্পাদক ছিলেন তিনি। তিনি ইংরেজী দৈনিক দি ইনডিপেনডেন্ট পত্রিকার ঝিনাইদহ প্রতিনিধি ছিলেন।
এতিম এ বালকটির নক্ষত্রের মতো জ্বলে ওঠা জীবণকে বিনীতভাবে সম্মান করে তাঁর রুহের মাগফেরাত কামনা করে। তিনি যেন বেহেশত নসীব হন সবার কাছে এ দোয়া প্রার্থনা করে ঝিনাইদহের চোখ পরিবার ।

ঝিনাইদহে খালের পানি নিষ্কাশন পাইপে পড়ে এক কিশোরের মৃত্যু
ঝিনাইদহ প্রতিনিধি:
ঝিনাইদহ সদর উপজেলার হরিশংকরপুর গ্রামে খালের পানি নিষ্কাশন পাইপে পড়ে মোহাম্মদ আলী (১২) নামের এক কিশোরের মৃত্যু হয়েছে।
আজ সোমবার দুপুরে এ ঘটনা ঘটে। মোহাম্মদ আলী ওই গ্রামের রফিকুল ইসলামের ছেলে।
স্থানীয়রা জানায়, দুপুরে মোহাম্মদ আলী খালের পানিতে গোসল করতে নামে। একপর্যায়ে তীব্র স্রোতে নিষ্কাশন পাইপের মধ্যে আটকা পড়ে। খবর পেয়ে স্থানীয়দের সহযোগিতায় ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা পাইপ কেটে তাকে উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করে। কিশোর মোহাম্মদ আলী স্থানীয় একটি মাদ্রাসার হেফজ বিভাগের ছাত্র ছিল।
ঝিনাইদহ সদর থানার ওসি মিজানুর রহমান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন।

দেশতথ্য//এল//

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরও সংবাদ
© All rights reserved © 2020 Deshtathya
Theme Design By : Rubel Ahammed Nannu : 01711011640